Type to search

জাহিদীয়

হারিয়ে যাওয়া বন্ধুরা

একসময়ে যে সব বন্ধুদের জীবন মরন মনে হতো, একটা সময়ের পর সেটা বিভাবে যেনো কেটে যায়। ঘন্টার পর ঘন্টা আড্ডাটা শুধু, “তারপর দিনকাল কেমন চলতেসে?” জাতীয় একটা প্রশ্নে এসে ঠেঁকে যায়। যার যার ক্যারিয়ার নিয়ে সবাই ব্যাস্ত। চায়ের দোকানটা থাকে। আজকাল সিগারেট ভাগ করে টানা লাগে না। চায়ে খেতে গিয়ে দুই কাপকে চার কাপ করা লাগে না। সবার মানিব্যাগের সাস্থ্য ভালো- সময়টা শুধু হয় না।
যেসব বান্ধবীদের সাথে আগে সারাক্ষণ ঘুরে বেড়াতাম তাদের সাথে দেখা হয় হুটহাট রাস্তায়, মার্কেটে। তাদের জামাইয়ে কান্ড, শশুর বাড়ির কাহিনি, বাচ্চাটার স্কুল অনিহা এসবের মাঝে বলা হয়ে উঠেনা- দোস্ত মিস করি রে ভীষন! ফুসকার খাওয়ার আবদার করে না কেউ। কেউ রাস্তা পার করে দিতে বলে না। হঠাৎ দেখা হলে সবাই নিজেকে জাহির করে। নিজের অবস্থান বর্ণনা করে যেনো বুঝিয়েই ছাড়ে- দেখ কত উপরে উঠে গেছি।

ক্যারিয়ার নিয়ে দুঃচিন্তার এই বয়সে বন্ধুরা হারিয়ে যায়। বন্ধুরা চায়ের দোকানে নেই। বন্ধুরা রাস্তার মোড়ে নেই। বন্ধুরা ফোনের ডায়াল লিষ্টে নেই। বন্ধুরা চ্যাট বক্সে নেই। বন্ধুরা কোথায়ও নেই।

শেয়ার করুন

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *