Type to search

জাহিদীয়

ছেলেবেলার ঈদ এবং লিডিং গ্রুপ

যৌথ বাড়িগুলোতে সবসময় পোলাপানদের মধ্যে একটা লিডিং গ্রুপ থাকে। এই যেমন, আমাদের বাড়িতে একসময় আমি আমার সমবয়সি কাজিনরা, আমরা ছিলাম লিডিং গ্রুপ। তারপর অনেকবছর আগে আমরা যখন পড়াশুনা বা অনান্য কাজে বাড়ি ছেড়ে শহরে যাই, তখন আমাদের জুনিয়র গ্রুপ আসে এই গুরুদায়িত্বে!

ঈদকে ঘিরে এই গ্রুপের অনেক দায়িত্ব থাকে। যেমন আতশবাজি কেনা, তারাবাতি কেনা, বাড়ির রাস্তা ঝাড়ু দেয়া। সম্ভব হলে চাঁদা তুলে বাড়ির রাস্তার দুই পাশের গাছগুলোতে চুন লাগিয়ে সৌন্দর্য বৃদ্ধির চেষ্টা! এ ছাড়া, ঈদের কয়েকদিন আগে থেকে স্কুল কলেজের পেছনে ঘুরে ঘুরে পরিত্যাক্ত কলম সংগ্রহ করা। তারপর চাঁদ রাতে এই কলম মাটিতে লাভ আকৃতিতে গেঁথে কিংবা বাড়ির প্রবেশপথের রাস্তার দুই পাশে কলমে গেঁথে মোমবাতির মতো জালানো হয়! নিয়ন আলোর এক অদ্ভুত আলোকসজ্জা হয় তখন। এটা আর কোথায়ও বাচ্চারা করে কিনা আমি জানি না।

এই ঈদে বারবার মনে হচ্ছিলো খালি, বড় হয়ে যাচ্ছি কেন এতো! এইযে গত ঈদেও হাতে মেহেদী পরলাম, এই ঈদে মনে হইলো, ধূর মেহেদী পরে হবে কি! পাঞ্জাবী কিনি নাই, ভাবলাম নামাজ পরে এসে তো খুলেই ফেলবো; আর যেহেতু পুরনো পাঞ্জাবি আমার অনেক আছে। এতো কেন বড় হচ্ছি বঝি না! ওই লিডিং গ্রুপে থাকাকালীন আনন্দ আর পাই না, এই বছর যতটুকু পাইসি সামনের বছর আরো কমবে। এই ভাবে কমতে কমতে একদিন দেখবো দিব্যি বেঁচে থেকেও ‘নাই’ হয়ে গেছি আমি.. হায়রে!

শেয়ার করুন

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *