Type to search

রম্য

ঘটনা কি?

আমাদের পাশের ফ্লাটের সুন্দুরী ভদ্রমহিলা হাজবেন্ডকে বাসায় রেখে বাজারে গেলেন। বাজার থেকে ফিরে অনেক্ষন সর্বশক্তি দিয়ে দরজা নক করার পরও ভেতর থেকে খুলছে না। উনার হাজবেন্ড এর নাম্বারে বেশ অনেকবার কল করার পরও কল ধরছে না।

দরজা নক করার শব্দে আমরা বের হলাম; দোতলা থেকে বাড়িওয়ালি আসলো। সব শুনে গম্ভীর ভাবে মাথা নেড়ে ওই মহিলাকে বললো,
– আপনাদের মধ্যে কি হইসে?
– কিছু হয় নাই!
– আমি নিজে দেখছি আপনি হন হন করে সিড়ি দিয়া নামলেন।
– বাজারে গেছিলাম
– নিশ্চয়ই কিছু ঘটছে, ঘটনা কি!

ঘটনা জানার জন্য বিভিন্ন তলার প্রায় সব ফ্লাটের বাসিন্দারাও হাজির। এরপর শুরু হলো মতবাদ,

“ইয়ে, একবার আমার এক চাচির এমন হইসিলো। আহারে দরজা ভাঙ্গার পর দেখে অজ্ঞান হয়ে পড়ে আছে”
“তিনি নিশ্চয়ই হোডফোনে গান শুনছেন”
“রাতে ঝগড়া করছেন?”
“একটা বেবি নিলেই পারেন, একা মানুষ বাসায়”
“বেবি কেনো নেয়না! ঝামেলা আছে”
“সাভারে এক বাবা আছেন, উনার পড়া পানি পড়া খাইলে অবশ্যই বেবি হবে…”

ততক্ষনে বাজার-টাজার ফেলে ভদ্রমহিলা সিড়িতে বসে পড়েছেন। মতবাদ চলছেই। আমি মতবাদে অংশ নিতে পারছি না, কারন বেবির ব্যাপারটা আসার পর বিশ্লেষকগন বেবি জন্মদান প্রক্রিয়াতে চলে গেছেন। বাড়িওয়ালি অলরেডি আমার দিকে দুইবার ভ্রু কুঁচকে তাকিয়েছেন। আমি ভেতরে এসে দরজা ধরে দাড়িয়ে দেখতে লাগলাম। টান টান উত্তেজনা, কিছু একটা ঘটবে…

নিচ থেকে দারোয়ান এলো। সিড়ি দিয়ে তার হেটে উঠার ভঙ্গিই বলে দিচ্ছিলো, সে আজকে উল্টিয়ে ফেলবে। সে আরো কয়েকবার জোরে নক করলো। বুট দিয়ে দরজায় লাথি মারলো। ভেতরে হালকা শব্দ পাওয়া যাচ্ছে। দরজা খুলেছে। ভদ্রমহিলার ভদ্রস্বামী ঘুমন্ত চোখ কচলাতে কচলাতে বললেন, “কি হইছে? ঘটনা কি ভাই? সবাই এই খানে! কি ঘটনা?”

শেয়ার করুন

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *