Type to search

গল্প

কয়েকটি বৃষ্টির ফোঁটা ও বাস্তবতার গল্প

(১)
পৃথিবীর সবচাইতে ধনি লোকটির আজ ব্যস্ততার শেষ নেই। আজ তার একমাত্র ছেলের বিয়ে। পৃথিবীর সব দেশের প্রধানমন্ত্রীরা আমন্ত্রিত। তার বিশাল প্রাসাদে আজ লোকে লোকারন্য। তার প্রাসাদ ঘিরে আজ বারো হাজার নিরাপত্তা কর্মী আধুনিক অস্ত্র নিয়ে সর্বোচ্ছ সতর্কতার সাথে পাহারা দিচ্ছে।

পৃথিবীর সবচাইতে ধনি লোকটির একমাত্র ছেলের বাসর সাজানো হচ্ছে। তার ছেলের ইচ্ছানুযায়ি বাসর ঘরে বৃষ্টির ইফেক্ট দেওয়া হবে। পৃথিবীর সেরা মিউজিশিয়ান দিয়ে বৃষ্টির শব্দের মিউজিক করা হয়েছে। 3D ইফেক্ট এ রুমের মাঝে বর্জপাতের আলো-ছায়ার খেলা দেওয়া হবে। টিনের চালে বৃষ্টি পড়ার শব্দ রেকর্ড করেছে পৃথিবীর সেরা রোকোর্ডার। এয়ার কূলারের মাধ্যমে রুমে বৃষ্টির দিনের মতো আবহাওয়া করা হয়েছে। বেসাময়িক বাহিনির একটি দল ১২৩ বারের মতো রুম চেক করে নিশ্চয়তা দিলো, রুমে কোন প্রকার গোপন ক্যামেরা নেই।

তবুও পৃথিবীর সবচাইতে ধনি লোকটির আজ অসুখি। সে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে। বিয়েটা ঠিক মতো হবে তো? কোন মহল গোপন হমলা করবে নাতো? রুমে আসলেই কোন ক্যামেরা নেই তো?

(২)
গরিব রিকসাচালক আজমত। আজ সে রিয়ে করেছে, একটু পরই বাসর। বাসর ঘরে পাটি পাতা হয়েছে। একটি খাট কিনার অনেক শখ ছিলো বেচারার, কিন্তু টাকা-পয়সায় কুলোতে পারিনি। আজ খুব বৃষ্টি হচ্ছে। নির্লজ্জ বৃষ্টির ফোটাগুলো আজমতের খড়ের চালের ফুটো দিয়ে ঘরে পড়ছে। নতুন বৌ এর সামনে ঘরের এ অবস্থার জন্য খুব লজ্জা পাচ্ছে আজমত। সে মনে মনে প্রকৃতিকে গালী দিচ্ছে “আজই বৃষ্টিটা হতে হলো!”

আজমত পাটি পাতা বাসর ঘরের দরজায় এসে দাড়ালো। বৃষ্টির পানিতে ঘর কাদা প্রায়! পাটির এক কোনায় তার নববিবাহিতা বৌ গুটিসুটি মেরে বসে আছে। বেচারি কাঁপছে, ঠান্ডায় বা ভয়ে!

বৌয়ের দিকে তাকিয়েই আজমতের মন প্রশান্তিতে ভরে উঠলো। এমন একটা বৌ পেয়ে সে নিজেকে ভাগ্যবান মনে করলো। তার নিজেকে খুব বেশি সুখি ভাবতে ইচ্ছে করছে। আহা, বৃষ্টির পানির মাঝে বেচারি বসে আছে, অপেক্ষা করছে, করেই যাচ্ছে!

শেয়ার করুন
Tags:

You Might also Like

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *