Type to search

জাহিদীয়

আমার বাবার সারপ্রাইজ ভিজিট এবং অন্যান্য

ইউটিউবে সারপ্রাইজ ভিজিট নামে কিছু ভিডিও আছে। বিষয়টা এমন যে, প্রবাসী কেউ একজন কাউকে কিছু না জানিয়ে হুট করে অনেকবছর পর দেশে চলে এসে সবাইকে চমকে দেয়। কেউবা মেয়ের জন্মদিনে, কেউবা বোনের বিয়েতে হুট করে এসে চরম চমকে দেয় সবাইকে। সাধারণ একটি সকালে মা রুটে বানাচ্ছেন, হুট করে কলিং বেল শুনে দরজা খুলে দেখলেন তার প্রবাসী সন্তান! মা কিছু বলতে পারেন না, তাকিয়ে থাকেন কিছুক্ষণ। হুট করে চিৎকার দিয়ে জড়িয়ে ধরেন!

মেয়ের জন্মদিনে মেয়েটা মন খারাপ করে ঘুমোচ্ছে, হুট করে টের পেলো কেউ তাকে ডাকছে। ঘুম ঘুম চোখে দেখলো বাবা বিছানায় বসা? এটি সত্যি না স্বপ্ন! এইরকম ভিডিওগুলা দেখি কখনো ভেঙ্গে পড়লে। জীবনকে বড় একগেঁয়ে মনে হলে এই ভিডিওগুলো দেখি। জীবন কত চমৎকার, বেঁচে থাকা কত আনন্দের! যারা মরে গেছে, নিজেকে মেরে ফেলেছে- তারা আপনদের এমন চমক কখনো দিতে পারবে না; আফসোস!

আমার বাবা একবার লক্ষ্মীপুর থেকে ঢাকায় এসে আমাদের সবাইকে চমকে দিতে চাইলেন। কিন্তু ঘটনা হলো, আব্বু রাস্তায় থাকা কালিন আম্মু আমাদের ফোনে বিষয়টা জানিয়ে দিয়েছে যে আব্বু আসতেছে 😛 মূলত আম্মুর ধারনা হয়েছিলো, চমক দিতে এসে আব্বু দেখলো আমরা কেউ বাসাই নাই, দরজায় তালা… কিংবা এরকম কিছু! আম্মু বললো, তিনি যে আমাদের জানিয়ে দিয়েছেন এটা আব্বুকে না বলে, আব্বু আসলে অবাক হওয়ার ভান করতে! বলাবাহুল্য, আব্বু দরজার নক করার পর দরজা খুলে আমরা সবাই চরম অবাক হওয়ার জটিল অভিনয় করলাম! আমরা ‘এ আমি কি দেখলাম!’ টাইপ দৃষ্টি নিয়ে অনেক্ষন আব্বুর দিকে তাকিয়ে রইলাম! ভাইয়া আবার এককাঠি সরস হইয়া বললো, ‘আরে আপনি কে? কইথেকে আসছেন? দেখতে তো আমার আব্বার মতো!’

শেয়ার করুন
Tags:

You Might also Like

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *